ঢাকা বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২৩

Popular bangla online news portal

বিরাটের ব্যক্তিগত ভিডিও ভাইরাল, রেগে আগুন আনুশকা


নিউজ ডেস্ক
১১:০০ - সোমবার, অক্টোবর ৩১, ২০২২
বিরাটের ব্যক্তিগত ভিডিও ভাইরাল, রেগে আগুন আনুশকা

রবিবার (৩০) বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে গেছে ভারত। এই ম্যাচে তেমন সুবিধা করতে পারেননি দেশটির অন্যতম ব্যাটিং ভরসা বিরাট কোহলি। তার ওপর ছেড়ে দিয়েছেন একটি সহজ ক্যাচ। এরমধ্যেই সোমবার (৩১ অক্টোবর) সকাল থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভারতীয় এই ক্রিকেট তারকার হোটেল রুমের একটি ব্যক্তিগত ভিডিও।


এভাবে ব্যক্তিগত পরিসরের ছবি ইন্টারনেটে তুলে ধরার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন বিরাট ও তার স্ত্রী বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা।

বলিউড অভিনেত্রী তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ভিডিওর কিছু অংশ শেয়ার করে লিখেছেন, ‘ব্যক্তিগত পরিসরের ছবি তুলে ধরার অভিজ্ঞতার মুখে আগেও পড়েছি, যেখানে ফ্যানেরা কোনও সহানুভূতি বা করুণা দেখায়নি কিন্তু এটা সেই অভিজ্ঞতার থেকেও খারাপ। খুবই অসভ্যতামি ও অমানবিক এবং যেই এই ভিডিও দেখবে সে এটাই বলবে যে সেলিব্রিটি হয়েছে তো এরকম হবেই, তাদের জানা উচিত যে তারাও এই সমস্যার অংশ আর এটা তোমার বেডরুমেও হতে পারে। তাহলে এর সীমা কোথায়?’


আনুশকার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি

কোনও এক পাপারাৎজির তোলা ভিডিও ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই বিরাট ও আনুশকার পাশে দাঁড়িয়েছে। কমেন্ট বক্সে অনেকেই এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে তুলে নেওয়ার পরামর্শ দেন। এক নেটিজেন লেখেন, ‘এটা খুবই নিম্ন রুচির পরিচয়’। অনেকেই হোটেলের বিরুদ্ধে মামলার কথা তুলেছেন। এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘ম্যানেজারের চাকরি গেল, এটা খুবই চিপ।’ অন্য এক ব্যক্তির মত, ‘এভাবে কারোর ব্যক্তিগত পরিসরে অনাধিকার অনুপ্রবেশ মেনে নেওয়া যায় না। সে কোনও সেলেব হোক কিংবা কোনও সাধারণ মানুষ।’

ভিডিও শেয়ার করে নিজের ক্ষোভ জানিয়েছেন বিরাটও। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন, 'আমি বুঝি যে, ফ্যানরা তাদের ফেভারিট প্লেয়ারদের দেখলে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়ে। তাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য মুখিয়ে থাকে। এই বিষয়টি নিয়ে আমি সবসময় প্রশংসা করেছি। কিন্তু এই ভিডিও সাংঘাতিক। আমার প্রাইভেসি নিয়ে আমি ভীত। যদি আমি নিজের হোটেল রুমেই কোনও ব্যক্তিগত পরিসর না পাই, তাহলে সেটা আমি কোথায় প্রত্যাশা করতে পারি? এরকম পাগলামি আর ব্যক্তিগত পরিসর ভেঙে দেওয়া আমার কাছে সঠিক নয়। দয়া করে মানুষের গোপনীয়তাকে সম্মান করতে শিখুন। তাদের বিনোদনের পণ্য ভাববেন না।'